ফ্যান কেনার আগে যে বিষয় গুলো বিবেচনায় রাখতে হবে, জানুন বিস্তারিত

Jakir Hossain August 31, 2019 No Comments

ফ্যান কেনার আগে যে বিষয় গুলো বিবেচনায় রাখতে হবে, জানুন বিস্তারিত

বৈশ্বিক আবহাওয়ার কারনে দিন দিন তাপমাত্রা বেড়েই চলেছে, অতিরিক্ত গরমের কারনে অনেকেই অতিষ্ট, এই হাফ ফাস গরমের থেকে বাচতে অনেকেই ফ্যান কিনে থাকে। কিন্তু ফ্যান কেনার আগে যে বিষয়গুলো বিবেচনা রেখে কিনতে হবে সেগুলো না জানার কারনে অনেকেই ফ্যান কিনে প্রতারিত হন এজন্য আজ Feeglee.com এর পাঠকদের জন্য নিয়ে এলাম ফ্যান কেনার আগে যে বিষয় গুলো বিবেচনায় রাখতে হবে।

ব্র্যান্ডঃ-
ফ্যান কেনার আজ্ঞে প্রথমেই আসে কোন ব্র্যান্ডের ফ্যান কিনবেন সেটি, যদি আপনি দেশি ব্র্যান্ডের ফ্যান কিনতে চান সেক্ষেত্রে গাজী, ন্যাশনাল, ভিশন, সিটি, যমুনা, ওয়ালটন, মিল্লাত, সিঙ্গার এসব ব্র্যান্ড এখন বাজারে বেশি চলছে, আপনার পছন্দ অনুসারে যেকোনো ব্র্যান্ডের টা কিনে নিতে পারেন, দামের বিষয়ে বলতে গেলে দেশি ব্র্যান্ড এর ফ্যানের দাম ২৫০০ থেকে ৩৫০০ এর মধ্যে হয়ে থাকে।

বিদেশি ব্র্যান্ডের ফ্যানের মধ্যে রয়েছে ইন্ডিয়ান ব্র্যান্ডের হ্যাবেলস ও ওয়ারিয়ান্ড, আর পাকিস্তানের পাক্কল, পাকি, জিএফসি এসব ফ্যানের দাম ২৮০০ থেকে ৫০০০ এর মদ্ধ্যে হয়ে থাকে।

টেবিল ফ্যানঃ-সব মহলেই টেবিল ফ্যানের চাহিদা রয়েছে বেশ, এর কারন হলো টেবিল ফ্যান সহজেই স্থানান্তর করা যায়, এবস ফ্যানের দাম ১২০০ টাকা থেকে ৩২০০ এর মধ্যে হয়ে থাকে।

স্ট্যান্ড ফ্যানঃ-
স্ট্যান্ড ফ্যান ও টেবিল ফ্যানের মত সহজেই স্থানান্তর করা যায়, বেশি বাতাস, কাছে নেয়া যায়, চতুর্দিকে বাতাস দেয়া যায়, এজন্য স্ট্যান্ড ফ্যানের চাহিদা অনেক বেশি। কেনার আগে ভালভাবে যাচাই বাচাই করে কিনবেন। স্ট্যান্ড ফ্যানের দাম সাধারণত ২৫০০ থেকে ৫৫০০ এর মধ্যে হয়ে থাকে।

চার্জার ফ্যানঃ-
গরমে যখন হাফ ফাস অবস্থা তখন ফ্যানই একমাত্র ভরসা গরমের থেকে মুক্তির জন্য। কিন্তু লোডশেডিং এর জন্য সেটাতেও গুরেবালি। কিন্ত আপনি যদি এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চান সেজন্য আপনার দরকার চার্জার ফ্যান। বিদ্যুৎ চলে গেলেও যেটা আপনাকে বাতাস দিয়ে যাবে। চার্জার ফ্যান কেনার আগে অবশ্যই মোটর ও ব্যাকআপ ক্ষমতা সম্পর্কে ভালভাবে জেনে তবেই কিনবেন। সাধারনত বিদ্যুৎ ছাড়া চার্জার ফ্যান ৪ থেকে ৫ ঘন্টা চলে থাকে। এসব ফ্যাবের দাম ২৫০০ থেকে ৩৫০০ এর মধ্যে হয়ে থাকে।

ওয়াল মুভিং ফ্যানঃ-
এই ফ্যান স্বাধারনত দেয়ালের সাথে লাগিয়ে রাখা হয় এবং এগুলো চারিদিকে বাতাস দিয়ে থাকে এজন্য এই ফ্যানকে ওয়াল মুভিং ফ্যান বলা হয়। এগুলো দেখতে টেবিল ফ্যানের মতই হয়ে থাকে। ওয়াল মুভিং ফ্যানের দাম ২৫০০ থেকে ৩০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

ওয়ারেন্টিঃ-
যে ধরনের ফ্যনই কিনুন না কনো কেনার আগে অবশ্যই দেখুন ব্রান্ড আপনাকে কত দিনের ওয়ারেন্টি দিচ্ছে, ওয়ারেন্টি থাকলে ফ্যানটি কিনে নিশ্চিন্তে চালাতে পারবেন কোনো সমস্যা হলে কোম্পানি সেটি দেখবে। নতুবা আপনাকেই সার্ভিস করাতে হবে। এজন্যই ওয়ারেন্টি দেখেই ফ্যান কিনুন।

Categories : Daily Tips