সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রসেস নিয়ে A-Z জানুন

Jakir Hossain August 24, 2019 No Comments

সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রসেস নিয়ে A-Z জানুন

feeglee.com এর পাঠকদের জন্য আজ নিয়ে এলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রসেস নিয়ে বিস্তারিত। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রসেস নিয়ে জানার শুরুতেই আমাদের জানতে হবে বিশ্ববিদ্যালয় কত প্রকার–
স্বাধারনত বিশ্ববিদ্যালয় ২ প্রকার
১) পাবলিক/সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
২) প্রাইভেট/
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

প্রথমেই আমরা জানবো পাবলিক/সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে, প্রথমেই সকল পাবলিক/সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম জেনে নেই।
(১) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।
(২) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।
(৩) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম।
(৪) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী।
(৫) খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা।
(৬) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।
(৭) কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা।
(৮) জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ।
(৯) বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর।
(১০) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।
(১১) বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল।
(১২) বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস, ঢাকা।
(১৩) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ।
(১৪) শের-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।
(১৫) সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট।
(১৬) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজিপুর।
(১৭) শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট।
(১৮) যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর।
(১৯) নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী।
(২০) হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,
দিনাজপুর।
(২১) মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, টাঙ্গাইল।
(২২) পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা।
(২৩) পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী।
(২৪) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,
গোপালগঞ্জ।
(২৫) রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙ্গামাটি।
(২৬) বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।
(২৭) বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।
(২৮) চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম।
(২৯) খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা।
(৩০) রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী।
(৩১) ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজিপুর।
(৩২) চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়,
চট্টগ্রাম।
(৩৩) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়,
(৩৪) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজিপুর।
(৩৫) বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, গাজিপুর।
(৩৬) ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

এবার আমরা জানবো পাবলিক ভার্সিটির ভর্তি পরীক্ষায় SSC ও HSC এর জিপিএ থেকে কোন ভার্সিটিতে কত মার্কস যোগ হয়ঃ
.
১) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ৮০ নম্বর
SSC point × 6 = 30
HSC point × 10 = 50
[ with 4th subject ]
২) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ২০ নম্বর
SSC point × 1.5 = 7.5
HSC point × 2.5 = 12.5
[ with 4th subject ]
৩) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ২০ নম্বর
SSC point × 1.5 = 7.5
HSC point × 2.5 = 12.5
৪) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ২৮ নম্বর
SSC point × 2.4 = 12
HSC point × 3.2 = 16
৫) Bangladesh University of Professionals = 40%
৬) বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ৮০ নম্বর
SSC point × 6 = 30
HSC point × 10 = 50
৭) বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ২০ নম্বর
SSC point × 1.5 = 7.5
HSC point × 2.5 = 12.5
৮) জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ৩০
নম্বর
SSC point × 2.4 = 12
HSC point × 3.6= 18
৯) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ৪০ নম্বর
SSC point × 4 = 20
HSC point × 4 = 20
১০) বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০ নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
[ without 4th subject ]
১১) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
= মোট ২০ নম্বর
SSC point × 2 = 10
HSC point × 2 = 10
১২) কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ৫০ নম্বর
SSC point × 4 = 20
HSC point × 6 = 30
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
১৪) পটুয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০ নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
১৫) নোয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০
নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
[ with 4th subject ]
১৬) পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০ নম্বর
SSC point × 0.8 = 4
HSC point × 1.2 = 6
১৭) শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ৩০ নম্বর
[ মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএ-কে ৩ দ্বারা গুণ করা
হবে। অনিয়মিত শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে ২.৭ দ্বারা গুণ করা
হবে। ]
১৮) মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০
নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
১৯) হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় =
মোট ৫০ নম্বর
SSC point × 4 = 20
HSC point × 5 = 30
২০) যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ২০ নম্বর
[ ফার্স্ট টাইমারদের ক্ষেত্রে SSC ও HSC জিপিএ’র মোট
যোগফলকে ২ দ্বারা গুণ করা হবে।
সেকেন্ড টাইমারদের ক্ষেত্রে SSC ও HSC জিপিএ’র মোট
যোগফলকে ১.৯০ দ্বারা গুণ করা হবে। ]
২১) রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০ নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
২২) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০ নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
[ without 4th subject ]
২৩) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০
নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
২৪) সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০ নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
২৫) শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় = মোট ১০০ নম্বর
SSC point × 8 = 40
HSC point × 12 = 60
২৫) চট্টগ্রাম ভেটেনারি ও এনিমেল সায়েন্স বিশ্ববিদ্যালয় =
মোট ১০০ নম্বর
SSC point × 8 =40
HSC point × 12 =60
# মেডিকেল = মোট ২০০ নম্বর
SSC point × 15 = 75
HSC point × 25 = 125
#জিপিএ_থেকে_কোনো_মার্কস_যোগ_হয়_না_যে_সকল_বিশ্ববিদ্যালয়ে :
১) Bangladesh University of Engineering & Technology (BUET)
= No marks on GPA
২) Khulna University of Engineering and Technology (KUET) =
No marks on GPA
৩) Rajshahi University of Engineering & Technology (RUET) =
No marks on GPA
৩) Chittagong University of Engineering & Technology (CUET) =
No marks on GPA
৪) Rajshahi University = No marks on GPA
৫) Khulna University = No marks on GPA
———————————————–
#বিভিন্ন_বিশ্ববিদ্যালয়ে_ভর্তি_পরিক্ষায়_আবেদন_করতে_কত_পয়েন্ট_লাগে –
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়:
SSC HSC total GPA(৪র্থ বিষয় সহ)
Unit:
A – 3.50 3.50 8.00
B – 3.50 3.50 7.00
C – 3.50 3.50 7.50
D – 3.00 3.00 (স্ব স্ব বিভাগের জিপিএ)
E – 3.00 3.00 6.50
.
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়:
SSC – HSC total GPA with 4th sub:
A – 3.50 3.50 8.00
B – 3.50 3.50 7.50
C – 3.50 3.5 8.00
D—Science: 3.00 3.00 7.50
Others: 3.00 3.00 7.00
E – 3.50 3.50 6.50
.
সরকারী মেডিকেল কলেজ:
SSC HSC total GPA with 4th sub: 9:00
.
জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়:
SSC – HSC total GPA with 4th sub:
A (গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক)– 3.50 3.50
8.00(CSE=9.00)
B (সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ)– 3.50 3.50
7.00 (science=8.00)
C (কলা ও মানবিক)– 3.00 3.00
7.00 (science=7.50)
D (জীববিজ্ঞান)– 3.50 3.50 8.00
E (বিজনেস স্টাডিজ)– 3.50 3.50 7.50
(science=8.50)
F (আইন)– 3.50 3.50 7.50(science=8.00)
G (IBA)– 4.00 4.00 8.00(science=8.50)
H (IT)– 3.5 3.50 (only science=8.00)
.
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়:
বিজ্ঞান- ৮.৫০
বানিজ্য- ৮.০০
মানবিক- ৭.৫
.
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়:
SSC HSC উভয়
A – 3.00 3.00 7.00
B – 3.50 3.50 7.00
B – 3.50 3.50 7.00
E – 4.00 4.00 7.00
F – 3.00 3.00 7.00
L – 3.00 3.00 7.00
S – 3.00 3.00 7.00
.
চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালঃ
*বিজ্ঞান বিভাগের জন্য SSC&HSC তে সর্বনিম্ন ৩ পয়েন্ট
থাকতে হবে এবং মোট GPA ৬.৫০
*মানবিক বিভাগের জন্য SSC& HSC তে সর্বনিম্ন ২.২৫ পয়েন্ট
থাকতে হবে এবং মোট GPA ৫.৫
*ব্যবসায় বিভাগের জন্য – SSC& HSC টে সর্বনিম্ন ৩ পয়েন্ট
থাকতে হবে এবং মোট GPA ৬.৫
.
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়:
with 4th sub:
SSC – ও HSC উভয়। মোট GPA
A – 3.00 7.00
B – 3.00 6.00
C – 3.00 6.50
D – 3.00 স্ব স্ব বভিাগের জিপিএ
.
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়:
SSC – HSC total GPA with 4th sub:
A মানবকি – 3.00 3.00 6.50
A বিজ্ঞান – 3.00 3.00 6.50
A ব্যবসায় – 3.00 3.00 6.50
B মানবকি – 3.25 3.25 7.00
B বিজ্ঞান – 3.50 3.50 7.50
B ব্যবসায় – 3.50 3.50 7.50
C মানবিক – 3.00 3.00 6.50
C বিজ্ঞান – 3.50 3.00 7.00
C ব্যবসায় – 3.00 3.00 6.50
D বিজ্ঞান – 3.50 3.50 7.50
E বিজ্ঞান– 3.50 3.50 7.50
F মানবিক – 3.00 3.00 6.50
F বিজ্ঞান – 3.50 3.50 7.50
F ব্যবসায় – 3.50 3.50 7.50
.
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
SSC – ও HSC total GPA with 4th sub:
A – মানবিক 3. 00 3.00 6.50
বিজ্ঞান – 3.25 3.25 7.00
ব্যবসায় – 3.25 3.25 6.75
B মানবিক – 3.00 3.00 6.50
ব্যবসায় – 3.25 3.25 6.75
C বিজ্ঞান – 3.25 3.25 7.50
D+ E+ F বিজ্ঞান শাখা 3.50 3.50 7.50
G – মানবিক ও ব্যবসায় 3.25 3.25 6.75
বিজ্ঞান শাখা 3.50 3.50 7.25
H মানবিক – 3.00 3.00 6.50
ব্যবসায়- 3.25 3.25 6.75
বিজ্ঞান- 3.25 3.25 7.00
.
জাতীয় কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
SSC – ও HSC উভয়টিতে
A – 3.00 মানবিক – 6.00
B – 2.50 ব্যবসায় – 6.50
C – 3.00 বিজ্ঞান – 7.00
D – 3.00 অন্যান্য – 7.50
.
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
SSC ও HSC total with 4th sub:
Aবিজ্ঞান – 3.00 -7.00
B মানবিক– 3.00 -6.50
C ব্যবসায়– 3.50 -7.00
.
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
(মানবিক: ৪র্থ সহ-৬.৫০),
(ব্যবসায়ে: ৪র্থ সহ-৬.৫০),
(বিজ্ঞান: ৪র্থ সহ ৬.৫০)
.
হাজী মোঃ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, দিনাজপুরঃ
(মানবিক: ৪র্থ সহ-৬.৫০),
(ব্যবসায়ে: ৪র্থ সহ-৬.৫০),
(বিজ্ঞান: ৪র্থ সহ-৬.৫০)
.
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
(মানবিক: ৪র্থ বাদে-৬.০০),
(ব্যবসায়ে: ৪র্থ বাদে-৬.০০),
(বিজ্ঞান: ৪র্থ বাদে-৬.০০)
.
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ঃ
(বিজ্ঞান: ৪র্থ বিষয় সহ-৭.০০)
.
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়:
(মানবিক: ৪র্থবাদে-৬.০০),
(ব্যবসায়ে:৪র্থ বাদে-৬.৫০),
(বিজ্ঞান: ৪র্থ বাদে-৬.৫০)
.
মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়:
(মানবিক: ৪র্থবাদে-৬.৫0),
(ব্যবসায়ে:৪র্থ বাদে-৬.৫০),
(বিজ্ঞান: ৪র্থবাদে-৬.৫০)
.
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়:
(মানবিক: ৪র্থবাদে-৬.৫০),
(ব্যবসায়ে:৪র্থ বাদে-৬.৫০),
(বিজ্ঞান: ৪র্থবাদে-৭.০০)
.
পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়:
এস.এস.সি ও এইচ. এস. সি পরীক্ষায় ৪র্থ বিষয় সহ নূন্যতম ৪.০০
সহ মোট নূন্যতম জিপিএ ৮.৫০ থাকতে হবে।
.
বুয়েট :
(নুন্যতম জিপিএ: ইংরেজি, বাংলাসহ ২৪)
.
খুলনা KUET:
(নুন্যতম জিপিএ: ইংরেজিসহ ১৮)
.
রাজশাহী RUET :
(নুন্যতম জিপিএ:ইংরেজিসহ ১৮.৫০)
.
চট্টগ্রামCUET :
(নুন্যতম জিপিএ:ইংরেজিসহ ১৭)
.
BUTex:
*HSC পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় বাদে 4.00 এর অধিক থাকতে হবে।
*পদার্থ,রসায়ন ও গণিত বিষয়ে প্রা
ক ইউনিট- ২৮ সেপ্টেম্বর
খ ইউনিট- ২১ সেপ্টেম্বর
গ ইউনিট- ১৪ সেপ্টেম্বর
ঘ ইউনিট- ১২ অক্টোবর
চ ইউনিট (সাধারণ জ্ঞান)- ১৫ সেপ্টেম্বর
চ-ইউনিটের(অংকন)- ২২ সেপ্টেম্বর
২) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় – ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ৪
অক্টোবর (২৮ ও ২৯ সেপ্টেম্বর বাদে)
৩) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়- ২২ ,২৩ অক্টোবর
৪) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়- ২৭ থেকে ৩০ অক্টোবর
৫) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়- ০৬, ১৩ ও ২৭ অক্টোবর
৬) বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস(BUP)- ২৬ ও ২৭
অক্টোবর
৭) খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় – ১৭ নভেম্বর
৮) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়- ০৪ থেকে ০৭ নভেম্বর
৯) কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়- ০৯ ও ১০ নভেম্বর
১০) জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়- ১১ থেকে
১৫ নভেম্বর
১১) বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়- ২৫ থেকে ২৯ নভেম্বর,
১২) বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়- ২৩ ও ২৪ নভেম্বর
১৩) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়- ৯
থেকে ১০ নভেম্বর।
.
কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যেঃ
১৪) শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৭ ডিসেম্বর
১৫) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০ নভেম্বর
১৬) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৫ নভেম্বর
১৭) সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৩ নভেম্বর
১৮) চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্স
বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৪ নভেম্বর
.
প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর মধ্যেঃ
১৯) বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ৬ অক্টোবর
২০) চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২ নভেম্বর
২১) রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২১ অক্টোবর
২২) খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৭ অক্টোবর
২৩) বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৯ নভেম্বর
.
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যেঃ
২৪) শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৩ অক্টোবর
২৫) হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে
২৬ থেকে ২৯ নভেম্বর
২৬) মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩০
নভেম্বর ও ১ ডিসেম্বর
২৭) পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ২১ ও ২২
ডিসেম্বর
২৮) নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৬ থেকে
২৮ অক্টোবর
২৯) যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২২ থেকে ২৪
নভেম্বর
৩০) পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৬ নভেম্বর
৩১) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
৪ ও ৫ ডিসেম্বর

এবার জেনে নেয়া যাক বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে্র আসন সংখ্য সম্পর্কে।
.
১) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ৬৬৮৮
২) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ৪৭০৮
৩) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ২২৫২
৪) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ৪৭২২
৫) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ২৮৫০
৬) বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়(B
UET) ১০৩০
৭) শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(SUST) ১৬৫৫
৮) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ১২০০
৯) খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৭০
১০) রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৭০
১১) চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৭০০
১২) বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় ৪৭০
১৩) খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ১১০২
১৪) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ১৬৯৫
১৫) হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৯৫০
১৬) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
৩০০০+
১৭) বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় ১২৩০
১৮) বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ১৩৪০
১৯) কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ১১৩৫
২০) জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ৮২৫
২১) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় ৪০
২২) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় ৯০
২৩) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ৩১০
২৪) শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ৫০০
২৫) সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ৪২০
২৬) বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস(BUP) ৯২৭
২৭) চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ২৩০
২৮) ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় ১১৯৬
২৯) ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৬২২
৩০) যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৬৫০
৩১) রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ১০০
৩২) মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৭৮৫
৩৩) নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৬৭
৩৪) পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৮৪০
৩৫) পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ৭৭৯
৩৬) বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ৭৭৭
.
সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট আসন (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া)
৪৮,৩৪৩
.
এছাড়াও মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে আসন আছে ৪,৩৪৪ টি।

এবার জানুন যেসব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ২য় বার ভর্তি পরীক্ষা দেয়া যাবে :
.
০. রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (RU)
১. জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (JU)
২. শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।(SUST)
৩. কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (CoU)
৪. খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (KU)
৫. বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (BU
৬. ইসলামি বিশ্ববিদ্যায় (IU)
৭. বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়,রংপুর (BRUR)
৮. জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়(JKKNIU)
৯. বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রোফেশনালস (BUP)
১০. পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (PSTU)
১১. বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (BAU)
১৩. ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলোজি (IUT)
১৪. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
(BSMRSTU)
১৫. মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (MBSTU)
১৬. নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (NSTU)
১৭. পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৮. হাজী মোহাম্মাদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
(HSTU)
১৯. যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (JUST)
২০. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
২১. শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
২২. সরকারি মেডিকেল কলেজ সমূহ

এবার আমরা জানবো বেসরকারি/প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রসেস সম্পর্কে।
বাংলাদেশের অতিরিক্ত জনসংখ্যা ও আর্থিক অবস্থার উন্যতির কারনে উচ্চতর শিক্ষার চাহিদা দিন দিন ব্যাপক আকার ধারন করছে, এই চাহিদা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গুলো না মেটাতে পারায় সরকার বেসরকারী বা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন দেয়। যেসব শিক্ষার্থী পড়াশোনার জন্য হয়ত ভারত বা অন্য কোন দেশে যেত তাদের অনেকে এখন দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেই পড়ছে। এভাবে বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হচ্ছে বলেও বলছেন অনেকে।

কিছু মানসম্মত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির প্রসেস দেয়া হলো
১) নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি

ভর্তিঃ-
আন্ডারগ্রাজুয়েট পর্যায়ে ভর্তির ক্ষেত্রে পূর্ববর্তী পরীক্ষার ফলাফল এবং ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বিবেচনায় নেয়া হয়। ভর্তি ফরমের মূল্য ৮০০ টাকা, নির্ধারিত ব্যাংক থেকে ভর্তি ফরম কেনা যায় আবার বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট থেকে ফরম ডাউনলোড করে সেটা পূরণ করেও জমা দেয়া যায়। সেক্ষেত্রে ফরমের সাথে ৮০০ টাকার পে-আর্ডার বা ব্যাংক ড্রাফট দিতে হয়।

আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা:-
এনটিসিবির পাঠ্যক্রম হলে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার প্রতিটিতে অন্তত জিপিএ ৩.৫ থাকতে হবে।
ইংরেজী মাধ্যম হলে ও-লেভেলে পাঁচটি বিষয়ে জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে আর এ-লেভেলে দু’টি বিষয়ে ২.০ থাকতে হবে।
তবে স্যাট ১২০০ অথবা টোফেল ৫৫০ অথবা আইইএলটিএস ৫.৫ স্কোর থাকলে সরাসরি ভর্তির সুযোগ দেয়া হয়।

এখানে পড়াশোনার খরচ:
ভর্তি ফি: পুরো কোর্সে একবারই ভর্তি ফি দিতে হয় এবং দেবার পর তা কখনো ফেরত দেয়া হয় না।

প্রোগ্রাম ভর্তি ফি

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামগুলোর জন্য ২০,০০০ টাকা

এমবিএ প্রোগ্রাম ২০,০০০ টাকা

ইভিনিং এমবিএ ২০,০০০ টাকা

এমএস ইন ইটিই/সিএসই/এমপিএইচ ১৫,০০০ টাকা

এমএস/এমএ ইন বায়ো-টেক/ইংরেজী/অর্থনীতি/এমডিএস ১০,০০০ টাকা

প্রতি ক্রেডিটে টিউশন ফি

প্রোগ্রাম টিউশন ফি

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামগুলোর জন্য ৪,৫০০ টাকা

এমবিএ প্রোগ্রাম ৫,৫০০ টাকা

ইভিনিং এমবিএ প্রোগ্রাম ৬,০০০ টাকা

এস ইন সিএসই/ইটিই ৪,২২৫ টাকা

এস ইন বায়োটেক ৪,২২৫ টাকা

এমএস/এমএ ইন ইংলিশ/ইকো/এমডিএস ৪,৫০০ টাকা

এমপিএইচ ৪,২২৫ টাকা

নন ডিগ্রী স্টুডেন্টস ৮,০০০ টাকা

এছাড়া সকল শিক্ষার্থীকেই প্রতি সেমিস্টারে স্টুডেন্ট এ্যাক্টিভিটি ফি বাবদ ২,০০০ টাকা, কম্পিউটার ল্যাব ফি বাবদ ১,৫০০ টাকা এবং লাইব্রেরী ফি বাবদ ৫০০ টাকা দিতে হয়। ভর্তির সময় জামানত হিসেবে দিতে হয় ৫,০০০ টাকা। ফর্মেসী, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, বায়োটেক, এমপিএইচ এবং ইএমভি নিয়ে পড়াশোনা করছে এমন শিক্ষার্থীদের ল্যাব ফি হিসেবে প্রতি সেমিস্টারে অতিরিক্ত ৫০০ টাকা দিতে হয়। স্থাপত্যবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীদের স্টুডিও কোর্স ফি হিসেবে প্রতি সেমিস্টারে ৩,০০০ টাকা দিতে হয়।

অন্যান্য সার্টিফিকেট কোর্সের ফি

কোর্স ফি

ডিজিটাল এন্ড অনলাইন লাইব্রেরীয়ানশীপ ১০,০০০ টাকা

ইংলিশ সার্টিফিকেট কোর্স ৭,০০০ টাকা

ইংলিশ স্পোকেন কোর্স (সিইপি) ৬,০০০ টাকা

ইংলিশ কোর্স (জেনারেল স্কিল ফর প্রফেশনালস) ৬,০০০ টাকা

চাইনীজ ল্যাঙ্গুয়েজ কোর্স ৫,০০০ টাকা

ফ্রেঞ্চ ল্যাঙ্গুয়েজ কোর্স ৫,০০০ টাকা

প্রি-ম্যাথ/প্রি-ইংলিশ কোর্স (পুরো সেমিস্টারের খরচ একত্রে) ২০,০০০ টাকা

এছাড়া ফিল্ড স্টাডির খরচ ডিপার্টমেন্ট থেকে নির্ধারন করা হয়।

২) আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
ভর্তির যোগ্যতাঃ-
এইচএসসি, আলিম বা এইচএসসি সমতূ্ল্য ডিপ্লোমা বা অন্যান্য কোর্সে পাশ করে এখানকার আন্ডারগ্রাজুয়েট কোর্স ভর্তি হতে হয়। এসএসসি এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষাগুলোতে জিপিএ ২.০০ বা ২য় বিভাগ থাকলে ভর্তির জন্য আবেদন করা যায়। ও লেভেলের তিনটি বিষয় এবং এ লেভেলের দু’টি বিষয়ে সি গ্রেড থাকলে ভর্তির আবেদন করা যায়। গড় জিইডি স্কোর ৪৫০ এবং অন্তত পাঁচটি বিষয়ে ৮০০ এর মধ্যে ৪১০ থাকলে ভর্তির জন্য আবেদন করা যায়।

ভর্তির জন্য আবেদন করাঃ-
ভর্তির তথ্য সংক্রান্ত পুস্তিকা এবং ভর্তি ফরমের মূল্য ৫০০ টাকা, যেটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি অফিস থেকে সংগ্রহ করতে হয়। অবশ্য ৫৫০ টাকা পাঠিয়ে দিলে ডাকেও ভর্তি ফরম পাঠিয়ে দেয়া হয়। প্রবাসী বাংলাদেশী বা বিদেশী নাগরিকগণ বাইরে থেকে আবেদন করতে চাইলে দিতে হবে ৫০০ টাকা। কেবলমাত্র ভর্তি ফরম দাখিলের মাধ্যমেও ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যায়।

৩) ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়
ভর্তি পরীক্ষাঃ-
ইংরেজী এবং লজিক্যাল রিজনিং এর ওপর একটি পরীক্ষা নেয়া হয়। বিবিএ, কম্পিউটার সায়েন্স, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইাঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, পদার্থবিজ্ঞান, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিকস, গণিত অর্থনীতি, ফার্মেসী, মাইক্রোবায়োলজি, বায়োটেকনোলজি প্রভৃতি বিষয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে ইংরেজী, লজিক্যাল রিজনিং এবং গণিতের ওপর ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হয়।
স্থাপত্যবিদ্যায় ভর্তির ক্ষেত্রে এ বিষয়গুলোর পাশাপাশি অংকনেরও একটি পরীক্ষা নেয়া হয়। ভর্তি পরীক্ষায় প্রতিটি বিষয়ে অন্তত ৪০ পেতে হবে ভর্তি জন্য। লিখিত পরীক্ষায় নির্বাচিত হলে মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হয়।

ভর্তির আবেদনের যোগ্যতা:-
**এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার প্রতিটিতে অন্তত জিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে।

**ও’ লেভেলে পাঁচটি বিষয়ে অন্তত জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে এবং এ লেভেলে দুটি বিষয়ে জিপিএ ২.৫ ছাড়াও মোট জিপিএ ৬.০০ থাকতে হবে। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালের স্কেল অনুযায়ী A=5, B=4, C=3, D=2 & E=1, কেবল একটি E গ্রহণযোগ্য।

**কেউ অন্য শিক্ষাপদ্ধতি থেকে সমমানের পরীক্ষা পাশ করে থাকলে বা দেশের বাইরে পড়াশোনা করে থাকলে আবেদনের আগে ইকুইভ্যালেন্স কমিটির অনুমোদন নিতে হবে।

**দু’বছর পর্যন্ত শিক্ষা বিরতি থাকলে আবেদন করা যায়। তবে শিক্ষা বিরতি দু’বছরের বেশি কিন্তু পাঁচ বছরের কম হলে ভর্তি কমিটির কাছে পাঠ বিরতির কারণ ব্যাখ্যা করতে হয়। আর পাঠবিরতি পাঁচ বছরের বেশি হলে সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন পেশ করা হয়।

**ইলেকট্রনিক এন্ড টেলিকিমিউনিকেশন ইঞ্জিনিারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, পদার্থবিজ্ঞান, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান এবং ইলেকট্রনিকসে ভর্তির ক্ষেত্রে এইচএসসি অথবা এ লেভেলে অবশ্যই পদার্থবিজ্ঞান এবং গণিত থাকতে হবে।

Categories : Daily Tips